হাছান মাহমুদ: মিথ্যা বলার পারদর্শি মওদুদ

মওদুদ আহমদ মিথ্যা বলার পারদর্শিতার কারণেই জিয়াউর রহমান ও এরশাদ সরকারের খুব প্রিয় মানুষ ছিলেন। তিনি এরশাদ সাহেবের প্রধানমন্ত্রী ও ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন।

জিয়াউর রহমানের পতনের মুহূর্তেই তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদন হাছান মাহমুদ। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ের প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির বৈঠক শেষে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বহু আগে থেকেই বিতর্কিত মানুষ। এরশাদের সময় তার দুর্নীতির শাস্তি হয়েছিল। বঙ্গবন্ধু যখন রাষ্ট্রক্ষমতায় ছিলেন তখন দুর্নীতির অভিযোগে তার শাস্তি হয়। কিন্তু পল্লীকবি জসিম উদ্দিনের মেয়ের জামাতা হিসেবে কবির অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে তার শাস্তি মওকুফ করা হয়। তিনি বহু আগে থেকেই একজন বিতর্কিত মানুষ।

তিনি আরো বলেন, কোম্পানীগঞ্জ বিএনপি কয়েক ভাগে বিভক্ত। ঈদের দিন তার বাড়িতে, তার সামনে বিএনপির নেতাকর্মীরা মারামারি করেন।

তার নিরাপত্তার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক ঘর হতে বের না হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। পরে তিনি এলাকায় গণসংযোগও করেন। তার প্রমাণ হিসেবে কোম্পানীগঞ্জের ছাত্রদলের একনেতার দেয়া মওদুদ আহমদের গণসংযোগের স্ট্যাটাসটি সাংবাদিকদের দেখান হাছান মাহমুদ।

image_printপ্রিন্ট

শেয়ার

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।